খাদ্য নিরাপত্তা ও গ্রামীণ জীবনযাত্রার মানোন্নয়নে ই-কৃষির অবদান স্বীকৃত : কৃষিবিদ দিলীপ কুমার

প্রকাশিত: ৭:০১ অপরাহ্ণ, ডিসেম্বর ২, ২০২০

খাদ্য নিরাপত্তা ও গ্রামীণ জীবনযাত্রার মানোন্নয়নে ই-কৃষির অবদান স্বীকৃত : কৃষিবিদ দিলীপ কুমার

বিজয়ের কণ্ঠ ডেস্ক
কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর সিলেট অঞ্চলের অতিরিক্ত পরিচালক দিলীপ কুমার অধিকারী বলেছেন, কৃষি বাংলাদেশের অর্থনীতির অন্যতম চালিকাশক্তি। জীবন-জীবিকার পাশাপাশি আমাদের সার্বিক উন্নয়নে কৃষি ওতপ্রোতভাবে জড়িয়ে আছে। তাই কৃষির উন্নয়ন মানে দেশের সার্বিক উন্নয়ন। টেকসই কৃষি উন্নয়নে সরকারের প্রচেষ্টা অব্যাহত রয়েছে।

 

তিনি বুধবার সিলেট নগরের আম্বরখানায় কৃষি তথ্য সার্ভিস কার্যালয়ে ‘কৃষি উন্নয়নে ই-কৃষি ব্যবহার’ শীর্ষক দুদিনব্যাপী প্রশিক্ষন কর্মশালায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন।

 

এসময় তিনি বলেন, কৃষিতে তথ্য প্রযুক্তির ভূমিকা আজ অনস্বীকার্য। খাদ্য নিরাপত্তা নিশ্চিতকরণ ও গ্রামীণ জীবনযাত্রার মানোন্নয়নে ই-কৃষির অবদান স্বীকৃত। ই-কৃষির ব্যবহার, উৎপাদনকারী কৃষকের বিভিন্ন অনুসন্ধান ব্যয় কমিয়ে সঠিক বাজার চিহ্নিত করতে সহায়তা করে, অপচয় কমায় এবং সর্বোপরি পণ্য বিক্রিতে একটি দরকষাকষির সুযোগ সৃষ্টি করে দেয়।

 

কর্মশালায় প্রশিক্ষক হিসেবে অংশ নেন কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর সিলেট এর উপপরিচালক মোহাম্মদ সালাহউদ্দিন, বিএডিসি সিলেট এর উপপরিচালক সুপ্রিয় পাল, বাংলাদেশ কৃষি গবেষণা ইনস্টিটিউট সিলেট এর প্রধান বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা ডক্টর মাহমুদুল ইসলাম নজরুল, আঞ্চলিক বেতার কৃষি কর্মকর্তা উম্মে হাবিবা, মৃত্তিকা সম্পদ উন্নয়ন ইনস্টিটিউট এর বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা মেহেদী হাসান এবং সিলেট হর্টিকালচার সেন্টার এর উদ্যানতত্ত¡বিদ রায়হান পারভেজ রনি। দুদিনব্যাপী প্রশিক্ষণে ৩০ জন উপসহকারী কৃষি কর্মকর্তা অংশ নেন।

  •  

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

সর্বশেষ ২৪ খবর