কমলগঞ্জে ২ সহস্রাধিক কুকুরকে টিকা দান

প্রকাশিত: 5:17 PM, November 24, 2018

কমলগঞ্জে ২ সহস্রাধিক কুকুরকে টিকা দান

কমলগঞ্জ সংবাদদাতা
মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জ উপজেলায় জলাতঙ্ক নির্মূলের লক্ষ্যে ২ সহস্রাধিক কুকুরকে টিকা দেয়া হয়েছে। সরকারের প্রাণী সম্পদ অধিদপ্তর, স্বাস্থ্য অধিদপ্তর ও স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়ের উদ্যোগে ১৬ নভেম্বর থেকে ২১ নভেম্বর পর্যন্ত কমলগঞ্জ পৌরসভাসহ ৯টি ইউনিয়নে বেওয়ারিশ ও বাসা বাড়ির কুকুরকে এ টিকা প্রদান করা হয়।

উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স সূত্রে জানা যায়, ২০২২ সালের মধ্যে বাংলাদেশ থেকে জলাতঙ্ক নির্মূলের ল্েয কুকুরের টিকাদান কর্মসূচী (এমপিভি)-ও মাধ্যমে জলাতঙ্ক রোগ প্রতিরোধে সারাদেশের ন্যায় কমলগঞ্জেও জনবল নিয়োগ করে কুকুর ধরে টিকাদানের উপর প্রশিণ প্রদান করা হয়। প্রশিণ শেষে ১০টি দলে ভাগ হয়ে ১০ জন করে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর ঢাকা থেকে আগত প্রশিক মিল্লাতুর রহমান ২ দিন প্রশিণ প্রদান করেন। প্রশিতিরা ১০জন করে ১০টি দলে ভাগ হয়ে মাঠ পর্যায়ে কাজ শুরু করেন। এ দলে স্বাস্থ্য বিভাগের প্রাণী সম্পদ বিভাগের প্রতিনিধিও ছিলেন।

১৬ নভেম্বর থেকে ২১ নভেম্বর ৫ দিনে কমলগঞ্জ পৌরসভাসহ বাকী ৯টি ইউনিয়নে ২ হাজার ৪২৪টি কুকুরকে টিকাদান করা হয়। কুকুরকে তিন বছরে ৩টি টিকা দান করা হবে। কুকুরকে জলাতঙ্ক রোগের টিকাদান কর্মসূচীর সদস্য কমলগঞ্জ উপজেলা স্যানিটারী স্বাস্থ্য পরিদর্শক মো. দুলাল মিয়া বলেন, রাস্তার বেওয়ারিশ কুকুরের সাথে বাসা বাড়ির কুকুর ও কুকুরের বাচ্চাদেরও টিকা দেওয়া হয়।

জলাতঙ্ক রোগ প্রতিরোধে কমলগঞ্জে দুই সহস্রাদিক কুকুরকে টিকাদানের সত্যতা নিশ্চিত করে কমলগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্প না কর্মকর্তা ডা. মোহাম্মদ ইয়াহিয়া বলেন, পূর্বে বিশেষ ব্যবস্থায় কুকুর নিধন করা হত। বর্তমানে কুকুর নিধন না করেই এ রোগ প্রতিরোধে বেওয়ারশি ও বাসা বাড়ির কুকুরকে জলাতঙ্ক প্রতিরোধক টিকা দানের কর্মসূচী গ্রহন করা হয়েছে।

তিনি আরও বলেন, সারা দেশেও সফলভাবে এ কর্মসূচী পালিত হবে। তা হলে আগামী ৩ বছরে শুনা যাবে জলাতঙ্ক রোগে কেউ মারা যাচ্ছে না। এ জন্য ১৩ নভেম্বর প্রথমে কমলগঞ্জে সচেতনতায় অবহিতকরণ সভা অনুষ্ঠিত হয়েছিল।

  •  

সর্বশেষ ২৪ খবর