কানাইঘাটে অলিউর রহমান হত্যার সর্ব্বোচ্চ শাস্তি চায় এলাকাবাসী

প্রকাশিত: 1:11 AM, December 29, 2019

কানাইঘাটে অলিউর রহমান হত্যার সর্ব্বোচ্চ শাস্তি চায় এলাকাবাসী

কানাইঘাট প্রতিনিধি : কানাইঘাটে অলিউর রহমান হত্যার বিচার চেয়ে মানববন্ধন করেছে এলাকাবাসী। ২৭ ডিসেম্বর শুক্রবার বিকাল ৩টায় সদর ইউপির ভাটিদিহি যাত্রী ছাউনির বোরহান উদ্দিন রাস্তায় এ মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়। এসময় এলাকার বিশিষ্ট মুরব্বী ডা: হারুনুর রশিদের সভাপতিত্বে ও ছাত্রনেতা তোফায়েল আহমদ এবং সালমান আহমদের যৌথ পরিচালনায় বক্তব্য রাখেন, মাষ্টার নূর মিয়া, বিশিষ্ট ব্যবসায়ী সারোয়ার ফারুকী, সাবেক ছাত্রনেতা বদরুজ্জামান, কানাইঘাট সরকারী কলেজের প্রভাষক রশিদ আহমদ, আফতাব উদ্দিন, মুস্তাফিজুর রহমান মাছুম, ছাত্রনেতা মারুফ আাহমদ, ব্যবসায়ী নজরুল ইসলাম, জাকারিয়া আহমদ।

এসময় অন্যান্যর মধ্যে উপস্থিত ছিলেন এবাদুর রহমান, আব্দুল কুদ্দুছ, জামাল উদ্দিন, মাসুক আহমদ, নুর ইসলাম, আব্দুশ শুকুর, আব্দুর রহিম, আম্বিয়া প্রমূখ। এসময় বক্তারা তাদের বক্তব্যে বলেন, অলিউর রহমান হত্যার ঘটনার সাথে জড়িত খুনিদের দ্রুত গ্রেপ্তার করায় কানাইঘাট থানা পুলিশের প্রতি কৃতজ্ঞতা জানান এবং অতি দ্রুত সময়ের মধ্যে খুনিদের সর্ব্বোচ্চ শাস্তির দাবি জানানো হয়। এমন ন্যক্কারজনক ঘটনার যেন পুনরাবৃত্তি না ঘটে সেজন্য গ্রেপ্তারকৃত আসামী খলিলুর রহমান (৬০), স্ত্রী রহিমা বেগম (৫০) ও ছেলে মামুন আহমদ (২৭) কে সর্বোচ্চ (শাস্তি) ফাঁসির দাবি জানানো হয়। মানববন্ধনে বক্তারা আরও বলেন, খুনিদের বাঁচাতে কিছু সংখ্যক কুচক্রী মহল টাকার লোভে অলিউর রহমানের ময়না তদন্তের রিপোর্ট পরিবর্তন করতে বিভিন্ন মহলে দৌড়ঝাঁপ শুরু করেছে। এ ব্যাপারে প্রশাসনের সজাগ দৃষ্টি রাখার আহবান জানানো হয়।

উল্লেখ্য, গত ১৭ ডিসেম্বর উপজেলার সদর ইউপির উমাগড় গ্রামের অলিউর রহমানের বসত বাড়ির জমি আত্মসাৎ করতে ব্যর্থ হয়ে তারই আপন ছোট ভাই ও ভাতিজার মারপিটে মৃত্যু হয়। অলিউর রহমানের কোন ছেলে সন্তান না থাকায় তার ছয় শতক জমি জোরপূর্বকভাবে নেওয়ার জন্য দীর্ঘদিন হইতে চাপ প্রয়োগ করিয়া আসিতেছি আসামীরা। কিন্তু ঘটনার দিন সকাল ১১টার দিকে রেজিষ্টারি অফিসে দলিল সম্পাদন করতে চাপ প্রয়োগ করে। কিন্তু মৃত্যু অলিউর রহমান এতে
অপারগতা প্রকাশ করায় মারধর করলে তিনি ঘটনাস্থলে মারা যান।

  •  

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

সর্বশেষ ২৪ খবর