দক্ষিণ সুরমা সরকারী হাইস্কুল প্রতিষ্ঠায় বহুদূর এগিয়ে যাবে শিক্ষার মান

প্রকাশিত: 3:18 PM, December 27, 2019

দক্ষিণ সুরমা সরকারী হাইস্কুল প্রতিষ্ঠায় বহুদূর এগিয়ে যাবে শিক্ষার মান

নিজস্ব প্রতিবেদন :
সিলেটের দক্ষিণ সুরমা সরকারী হাইস্কুল প্রতিষ্ঠা করার কারণে এই উপজেলায় শিক্ষার মান বহুদূর এগিয়ে যাবে বলে মন্তব্য করেছেন স্কুল নির্মানের ঠিকাদার মুহাম্মদ ফজলে এলাহি মঞ্জু। তিনি বলেন, বর্তমান সরকার শিক্ষার দিকে বিশেষ নজর দেওয়ায় এই স্কুল প্রতিষ্ঠা করা সম্ভব হয়েছে। তিনি জানান, ১১ কোটি ৭৯ লাখ ২ হাজার টাকা ব্যয়ে স্কুলটি নির্মান করা হয়েছে। উপজেলার কুশিঘাটে নির্মিত সাততলা বিশিষ্ট স্কুলভবনটি সম্পূর্ন ভূমিকম্প সহনীয়। রেখটার স্কেলে ৬ দশমিক ৭ মাত্রার ভূমিকম্প হলেও স্কুলটির কিছুই হবে না। স্কুলটি নির্মিত হয়েছে ২শ’ ২৮ টি পাইলস-এর উপর। স্কুলে রয়েছে আইসিটি ল্যাব, স্ট্যান্ডবাই জেনারেটর এবং (২য় পৃষ্ঠায় দেখুন)
ছাত্রছাত্রী উঠা-নামার পৃথক দুটি লিফট। এছাড়াও রয়েছে দুটি স্মার্ট ক্লাসরুম, সীমান প্রাচীর, আভ্যন্তরীন রাস্তা, প্রধান শিক্ষকের একতলা বাসভবন এবং সাততলার উপরে রয়েছে শোভাবর্ধক বিভিন্ন কারুকাজ। প্রখ্যাত ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান এলাহী এন্টারপ্রাইজের তত্বাবধানে স্কুলটি নির্মানের পুরো কাজ দক্ষতার সাথে সম্পন্ন হয়েছে। এলাহী এন্টারপ্রাইজের কর্ণধার মুহাম্মদ ফজলে এলাহি মঞ্জু আরো বলেন, ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান হিসেবে নির্মান কাজে লাভ করাটাই স্বাভাবিক। কিন্তু এ প্রকল্পে টেকসই কাজের মান উন্নয় চিন্তা করে ও সিলেটের স্বপ্ন বাস্তবায়নের লক্ষ্যে আমার প্রতিষ্ঠান এ কাজে মুনাফার কোন চিন্তাই করে নি। শতভাগ স্বচ্ছতার সাথে কাজ সম্পন্ন করা হয়েছে। ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠানের ইতিহাসে এ শিক্ষাভবনের কাজ মাইল ফলক হয়ে থাকবে বলেও আমি মনে করি।
সিলেট শিক্ষা প্রকৌশল অধিদপ্তরের সহকারী প্রকৌশলী অনন্ত কুমার ভৌমিক জানান, দক্ষিণ সুরমার শিক্ষার মান উন্নয়নে শিক্ষা মন্ত্রনালয়ের বিশেষ নির্দেশনায় আমরা স্কুলটি নির্মান করেছি।
প্রথমবারের মত স্কুলের ভর্তি পরীক্ষা ২৮ ডিসেম্বর। ৬ষ্ঠ শ্রেণি থেকে নবম শ্রেণি পর্যন্ত এই স্কুলে ছাত্র-ছাত্রী ভর্তির সুযোগ রয়েছে। ইতোমধ্যে সহ¯্রাধিক ছাত্র-ছাত্রী ভর্তির জন্য আবেদন ফরম জামা দিয়েছে। গতবছর (১৯১৮ সালে) স্কুলটি চালু করণের কথা থাকলেও বিভিন্ন কারিগরি পরীক্ষা-নিরীক্ষা সম্পন্œ না হওয়ার কারণে তখন তা করা সম্ভব হয়নি।
সিলেট শিক্ষা প্রকৌশল অধিদপ্তরের নির্বাহী প্রকৌশলী মো. নজরুল হাকিম জানান, ভালো ও উন্নতমানের স্কুল বলতে যা বুঝায় এর সবকিছুই এই দক্ষিণ সুরমা সরকারী হাইস্কুলে রয়েছে। এই স্কুলে নিয়োগ দেওয়া হয়েছে উন্নতমানের প্রশিক্ষিত শিক্ষক। অনুরূপ সিলেট সদরের লাক্কাতুরা সরকারী হাইস্কুলে উন্নতমানের অবকাঠামোগত সুযোগ সুবিধা রয়েছে বলেও জানান তিনি।
অভিভাবক মহলের মতে ভর্তি পরীক্ষা দিয়ে ছাত্র-ছাত্রীদের ওই স্কুলে ভর্তি হওয়া কঠিন হয়ে পড়েছে। নতুন স্কুল হিসেবে ভর্তির ব্যপারটা সহজতর করা বাঞ্চনীয় বলে জানান তারা।

  •  

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

সর্বশেষ ২৪ খবর