সিলেটে বইপড়া উৎসবে শিক্ষার্থীর হাতে জাতির জনকের ‘অসমাপ্ত আত্মজীবনী’

প্রকাশিত: 9:03 PM, December 21, 2019

সিলেটে বইপড়া উৎসবে শিক্ষার্থীর হাতে জাতির জনকের ‘অসমাপ্ত আত্মজীবনী’

প্রতিদিন ডেস্ক : সিলেটে হাজারো শিক্ষার্থীর হাতে জাতির জনকের ‘অসমাপ্ত আত্মজীবনী’ গ্রন্থটি তুলে দিয়ে শুরু হলো ইনোভেটর আয়োজিত’ জেলা পরিষদ, সিলেট’ বইপড়া উৎসবের। শনিবার, বিকেল ৩ ঘটিকায় সিলেট কেন্দ্রীয় শহিদমিনার প্রাঙ্গণে এ উৎসবের উদ্বোধন হয়। বীর মুক্তিযোদ্ধা, প্রশাসনের উর্ধ্বতন কর্মকতা, শিল্পী, লেখকদের উপস্থিতে উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বক্তারা বলেন, বাঙালী জাতির সবচেয়ে বড়ো গ্রন্থের নাম শেখ মুজিব। মুজিবকে না পড়লে, এই মুজিবের জীবনকে না জানলে বাঙালজনমের অতৃপ্তি রয়েই যাবে। তারা বলেন, মুজিব পাঠ ভিন্ন বাঙালী জীবন কখনোই সম্পূর্ণ হয় না। কেননা, শেখ মুজিব আর বাংলাদেশ একই বৃন্তে গাঁথা। আমাদের সাহসের জন্য, দ্রোহ, বিপ্লব আর সংগ্রামের প্রেরণার জন্য, মুক্তিযুদ্ধের গৌরব আর শৌর্যকে অন্তরে প্রতিষ্ঠার জন্য শেখ মুজিব কে অধ্যয়ন জরুরী। তরুন প্রজন্মের উদ্দেশ্যে বক্তারা বলেন, একজন আর্দশ বাঙালী হওয়ার স্বপ্ন দেখতে হলে সবার আগে শেখ মুজিবের জীবন, কর্ম ও আর্দশের পাঠ নিতে হয়। সে লক্ষ্যে ইনোভেটর এর এ উদ্যোগ জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এর জীবনাদর্শ প্রচারে এক মাইলফলক। বক্তারা আরো বলেন, মুক্তিযুদ্ধ কিংবা মুজিব পাঠ কখনো সমাপ্ত হয় না। দেশপ্রেম কখনো ফুরিয়ে যাওয়ার জিনিস না। তাই, তারুণ্যের মনোজগতে দেশপ্রেমের প্রদীপ প্রজ্জ্বলিত করতে গ্রন্থ পাঠের বিকল্প নেই। বক্তারা, তরুণ শিক্ষার্থীদের ইতিহাস এবং তথ্য বিকৃতির বিরুদ্ধে সজাগ থাকারও আহবান জানান। আলোচনা আর যুদ্ধ দিনের স্মৃতিচারণায় অনুষ্ঠানস্থল পরিণত হয় একখন্ড বাংলাদেশে।
অনুষ্ঠানে সম্মানিত অতিথি ছিলেন অতিরিক্ত বিভাগীয় কমিশনার মোঃ তাহমিদুল হক, জেলা পরিষদ, সিলেট এর প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা দেবজিৎ সিংহ, জেলা পুলিশ সুপার মোঃ ফরিদ উদ্দিন, বীর মুক্তিযোদ্ধা নীলকান্ত সিংহ এবং শহীদ আলতাফ মাহমুদ কন্যা, শাওন মাহমুদ। ইনোভেটর এর মুখ্য সঞ্চালক, সিটি কাউন্সিলর রেজওয়ান আহমদ এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বইপড়া উৎসবের পথচলা নিয়ে স্বাগত বক্তব্য রাখেন ইনোভেটর এর নির্বাহী সঞ্চালক, সিলেট ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির সহকারী অধ্যাপক প্রণবকান্তি দেব। ইনোভেটর এর সদস্য ঈশিতা ঘোষ চৌধুরী এবং সুপ্রিয়া তালুকদার এর সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে বইপড়া উৎসবে অংশগ্রহণের প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করেন এমসি কলেজের শিক্ষার্থী কাকনপ্রিয়া গোস্বামী এবং সোবহানিঘাট মাদ্রাসার শিক্ষার্থী আব্দুল মোমিন। গীতবিতান বাংলাদেশের পরিচালক, বিশিষ্ট রবীন্দ্র সংগীত শিল্পী অনিমেষ বিজয় চৌধুরীর পরিচালনায় মহান জাতীয় সংগীত এর মাধ্যমে শুরু হয় বর্ণাঢ্য আয়োজন। তার আগেই দুপুর থেকেই সিলেটের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে বইপ্রেমী শিক্ষার্থীরা জড়ো হতে থাকে শহীদ মিনারে। ইনোভেটর এর সমন্বয়ক প্রভাষক সুমন রায় এবং আশরাফুল ইসলাম অনির তত্ত্বাবধানে ইনোভেটর এর কর্মীরা শিক্ষার্থীদের রিপোর্ট কার্যক্রম সম্পন্ন করেন। বেলা ৩ টা বাজার সাথে সাথেই শহীদ মিনার প্রাঙ্গণ কানায় কানায় পূর্ণ হয়ে যায়। জাতীয় সংগীতের পর পরই মূলমঞ্চে অতিথিদের বরণ করে নেন ইনোভেটরের সদস্যরা।
আলোচনাসভা শেষে বইপড়া উৎসবে অংশগ্রহণকারী শিক্ষার্থীদের হাতে বই তুলে দেন অতিথিবৃন্দ। মুজিববর্ষকে সামনে রেখে বইপড়া উৎসবের এবারের আসরটি জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব রহমানকে উৎসর্গ করা হয়।

  •  

সর্বশেষ ২৪ খবর